গাজীপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম

স্টাফ রিপোর্টার
গাজীপুরের বিকেবাড়িতে যৌতুকের দাবিতে এক গৃহবধূকে ক্রিকেটের স্ট্যাম দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতিতা শাহিদা আক্তার (২৫) গাজীপুর সদর উপজেলার পাইনশাইল এলাকার আবু সাঈদের মেয়ে। রোববার সকালে বিবেবাড়ি সিকদার মার্কট এলাকায় শশুর বাড়িতে ওই গৃহবধূ নির্যাতনের শিকার হন।
শাহিদা আক্তার বলেন, জেলার জয়দেবপুর থানার বিকেবাড়ি সিকদার মাকেট এলাকার আব্দুর রশিদের ছেলে মোশারফ হোসেনের সাথে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে পরিচয় হয়। পরে ২০১১ সালে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন চালিয়ে আসছে শশুর বাড়ির লোকজন। পরবর্তীতে বাবার বাড়ির ওয়ারিশান জমি বিক্রি করে নগদ ২৫লাখ টাকা এনে দেয়। বিভিন্ন সময়ে আরো টাকা এনে দেয়ার জন্য চাপ দেয়। তাদের সংসারে তিন ছেলে সন্তান রয়েছে।
সন্তানদের কথা ভেবে সকল নির্যাতন সহ্যকরে সংসার করে আছে। এরইমধ্যে রোববার সকালে শাহিদা আক্তার সংসারী কাজে ব্যস্ত ছিলেন। এ সময় তার স্বামীর বড় বোন নাগিস আক্তার এবং বড় বোনের স্বামী খোরশেদ আলম এলিস ইচ্ছাকৃত ঝগড়ার সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে তার স্বামী মোশারফ ক্রিকেটের স্ট্যাম দিয়ে পিটায় এবং শাহিদার মাথায় আঘাত করে। এতে শাহিদা জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে পরে গেলে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে। এ বিষয়ে মোশারফ হোসেন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তার স্ত্রী শাহিদা আক্তার পরকীয়ায় আসক্ত। বিষয়টি নিয়ে তাকে অনেক বোঝানো হয়েছে। কিন্তু সে কারো কথা শুনেনি। সে নিজেরই নিজের মাথা ফাটিয়েছে।
জয়দেবপুর থানার ওসি জাবেদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় কেউ এখনো থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *